News

লোডশেডিং শিডিউল ২০২২ এলাকা ভিত্তিক লোডশেডিং এর সময়সূচি

কোন এলাকায় কখন লোডশেডিং জেনে নিন রুটিন

আজ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের প্রত্যেকটি জেলায় সময় ভিত্তিক লোডশেডিং। এর আগে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় অথবা বিভিন্ন এলাকাতে লোডশেডিং দেওয়া হলেও এখন থেকে নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী জেলা ভিত্তিক অথবা এলাকার ভিত্তিক লোডশেডিং দিয়ে দেওয়া হবে। সম্প্রতি আমরা লোডশেডিং গুলো বেশি লক্ষ্য করছি।

এর প্রধান কারণ হলো প্রাকৃতিক গ্যাসের সংকট এবং যে জালানির মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয় সেই জ্বালানির মূল্যের বৃদ্ধি পাওয়া। তাই জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে সাময়িকভাবে লোডশেডিং করা হচ্ছে যাতে বাংলাদেশের যে সংস্থা গুলো বিদ্যুৎ উৎপাদন করে এবং প্রদান করে তারা সাময়িকভাবে তাদের ক্ষতিপুষিয়ে নিতে পারে এবং অতিরিক্ত মূল্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন যাতে না করতে হয়।

লোডশেডিং শিডিউল পল্লী বিদ্যুৎ

সারা দেশে এক যুগে লোডশেডিং এর সৃষ্টি না করে বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন সময় লোডশেডিং দিয়ে দেওয়া হবে এবং এক্ষেত্রে কোন এলাকায় দুই ঘন্টা লোডশেডিং হবে তো পাশের এলাকায় বিদ্যুৎ থাকবে। আবার পাশের এলাকায় যখন বিদ্যুৎ থাকবে তখন তার পাশের এলাকায় দেখা যাবে যে লোডশেডিং দিয়ে দেওয়া হবে। সারা বাংলাদেশের বিদ্যুৎ প্রদান করার যে সকল বিদ্যুৎ সমিতি রয়েছে তারা এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে এবং এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে আজকে জুলাই মাসের 19 তারিখ থেকে তা কার্যকর করা হবে।

লোডশেডিং শিডিউল

তাই সাময়িক লোডশেডিং আমরা যদি মেনে চলতে পারি তাহলে দেখা যাবে যে বাংলাদেশ বিদ্যুতায়ন বোর্ডের অনেক টাকা সাশ্রয় হবে এবং সেই সাথে অতিরিক্ত মূল্যে বিদ্যুৎ ক্রয় করা থেকে বিরত থাকতে পারবে। তাছাড়া বিদ্যুৎ খরচ যাতে কম হয় সেই জন্য বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এবং দোকানপাট তাড়াতাড়ি বন্ধ রাখা সহ বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলা ভিত্তিক লোডশেডিং এর সময়সূচী

গতকাল যখন প্রত্যেকটি জেলা ভিত্তিক লোডশেডিং এর ঘোষণা করা হয় তখন কোন জেলায় কোন সময় লোডশেডিং থাকবে এবং কোন জেলায় বিদ্যুৎ প্রদান করা হবে তার একটা লিস্ট প্রদান করা হয়। সেই লিস্টের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি যে কালো দাগ দেওয়া ঘর গুলো এবং উপরের সময়সূচি অনুযায়ী লোডশেডিং দিয়ে দেওয়া হবে এবং আপনারা যদি লোডশেডিং এর পাশাপাশি বিদ্যুৎ ব্যবহারের ব্যাপারে সাশ্রয়ী ভূমিকা পালন করেন তাহলে দেখা যাবে যে এই সমস্যা থেকে অনেকটাই সমাধান পাওয়া যাবে।

Load Shedding Schedule Today

প্রয়োজনের বাইরে আমরা যদি বিদ্যুৎ খরচ না করি অর্থাৎ আমাদের যে বিদ্যুৎ ব্যবহার করার কোন দরকার নেই তা ব্যবহার করার ব্যাপারে যদি আমরা সাশ্রয়ী হয়ে থাকে তাহলে দেখা যাবে যে বিদ্যুতের চাহিদা কমে যাবে এবং একসময় উৎপাদনের সঙ্গে খরচের ক্ষমতা আসার কারণে সকল ধরনের সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে।

এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং এর সময়সূচী

আপনারা যারা এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং এর সময়সূচি জানতে চাচ্ছেন তারা বিভিন্ন এলাকায় কোন সময়ে কখন লোডশেডিং দিয়ে দেওয়া হবে তা পিডিএফ ফাইল আকারে সংগ্রহ করতে পারবেন। সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন বিদ্যুৎ সমিতি রয়েছে যারা এলাকাভিত্তিক অর্থাৎ জেলা ভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রদান করে থাকে।

এই বিদ্যুৎ প্রদান করার মাধ্যমে সকল স্থান বিদ্যুতের সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করতে পারে। তবে এই ঘোষণার পর থেকে কখন আপনার এলাকায় লোডশেডিং দেয়া হবে এবং কোন সময় থেকে কোন সময় বিদ্যুৎ থাকবে না সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার জন্য আপনারা তালিকা দেখে নিন। সেই সাথে আপনার পাশের লোকে কখন লোডশেডিং দেওয়া হবে এবং আপনার এলাকায় কোন সময় লোডশেডিং থাকবে তা দেখে নিলে আপনারা দৈনন্দিন জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো সম্পন্ন করতে পারবেন।

ডিপিডিসির তালিকায় থাকা এলাকাগুলোর মধ্যে আছে—ঢাকার আদাবর, আজিমপুর, বনশ্রী, বাংলাবাজার, বংশাল, বাসাবো, ডেমরা, ধানমন্ডি, ঝিগাতলা, জুরাইন, কাকরাইল, কামরাঙ্গীরচর, খিলগাঁও, লালবাগ, মানিকনগর, মাতুয়াইল, মগবাজার, মতিঝিল, মুগদাপাড়া, নারিন্দা, পরীবাগ, পোস্তগোলা, রাজারবাগ, রমনা, সাতমসজিদ, শ্যামলী, শেরেবাংলা নগর, শ্যামপুর, স্বামীবাগ ও তেজগাঁও। নারায়ণগঞ্জের মধ্যে আছে ফতুল্লা, কাজলা, পূর্ব ও পশ্চিম নারায়ণগঞ্জ, সিদ্ধিরগঞ্জ ও শীতলক্ষ্যা।

Shahriar Hossain

This is the Shahriar Hossain from Charghat, Rajshahi. I have completed my MA from Rajshahi University in English Literature. Currently living a প্রাণোচ্ছল Life with friends & Family. Always Positive & Simple ❤️ Friendly, Helpful, Learning & Teaching Everyday 😎
Back to top button