Assignment

ষষ্ঠ শ্রেণির গার্হস্থ্য বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২০

ষষ্ঠ শ্রেণির গার্হস্থ্য বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল সমাধান

প্রিয় শিক্ষার্থীরা বর্তমানে এমন একটি সময় এসেছে যে সময় তোমাদের পড়ালেখার বদলে গৃহবন্দি অবস্থায় দিন কাটাতে হচ্ছে। করোনা ভাইরাসের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তাদের নিজ নিজ শিক্ষাব্যবস্থা স্থগিত করে রেখেছে। শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা করার নিমিত্তে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সাপ্তাহিক ভাবে বিভিন্ন ধরনের অ্যাসাইনমেন্ট দিচ্ছে এবং সেগুলো গ্রহণ করছে।

কিন্তু অ্যাসাইনমেন্ট সম্পর্কে তোমাদের পর্যাপ্ত ধারণা না থাকায় তোমরা বিভিন্ন ধরনের ঝামেলা পড়েছো। তাই তোমাদের অ্যাসেসমেন্ট সম্পর্কিত বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের বিভিন্ন লেখকগণ তাদের অভিজ্ঞতা দ্বারা প্রস্তুত করে দিচ্ছে। তোমাদের ষষ্ঠ শ্রেণির গার্হস্থ্য বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হল।

অ্যাসাইনমেন্ট এর মধ্যে সবচাইতে উল্লেখযোগ একটি অধ্যায় হলো খাদ্য, পুষ্টি ও স্বাস্থ্য। খাদ্য, পুষ্টি ও স্বাস্থ্যের সঙ্গে আমাদেরও সম্পর্ক রয়েছে। খাদ্য এবং পুষ্টির সঙ্গে আমাদের যদি সম্পর্ক নাই থাকে তাহলে আপনার শারীরিকভাবে বিভিন্ন ভাবে দুর্বল হয়ে পড়ি। সেই দুর্বলতা কাটানোর জন্য আমাদের শারীরিকভাবে সুস্থ থাকতে হয় এবং সুস্থ থাকার লক্ষ্যে আমাদেরকে খাদ্য এবং পুষ্টিকর খাদ্য গ্রহণ করতে হয়।

খাদ্যের বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে। যেমন খাদ্য দেহের শক্তি যোগায়, শারীরিক বৃদ্ধি ঘটায়, কোন কাজ করতে আগ্রহী এবং বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সৃষ্টি করে। একজন স্বাস্থ্যবান ব্যক্তির খাদ্য ও পুষ্টি গ্রহনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যবান হয়ে ওঠে। একজন স্বাস্থ্যবান ব্যক্তির সবসময় কাজে প্রাণচঞ্চল এবং কর্ম উদ্দীপনা সু-স্বাস্থ্য এর প্রকাশ ঘটায়। সকলকে খুব গুরুত্বের সঙ্গে করে স্বাস্থ্যবান হওয়ার লক্ষ্যে নিয়মিত পুষ্টিকর খাদ্য আমাদেরকে গ্রহণ করতে হবে।

শুধু খাদ্য পুষ্টি হলে হবে না সেগুলো পরিচ্ছন্ন পরিবেশে অবশ্যই প্রস্তুত করতে হবে। আমরা যদি অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাদ্য প্রস্তুত করি তাহলে অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে থাকে জীবাণু থাকে এবং সংক্রমিত খাবার আমরা গ্রহণ করে থাকি ফলে আমরা অসুস্থ হয়ে পড়ি। কিন্তু খাবারটি যদি পরিচ্ছন্ন পরিবেশের রান্না করা হয় তাহলে আমরা পরিচ্ছন্ন এবং জীবাণুমুক্ত খাবার গ্রহণ করি।

আমরা শারীরিকভাবে সুস্থ হয়ে ওঠি। স্বাস্থ্যের দিকে লক্ষ্য রেখে সব সময় পরিচ্ছন্ন পরিবেশের খাদ্য গ্রহণ করতে হবে। অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাদ্যকে আমরা সংক্রমণ যুক্ত খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করছি। তার ফলে আমাদের শরীরে বিভিন্ন ধরনের রোগের সংক্রমণ ঘটেছে। এতে শরীরে অপুষ্টি দেখা দেয় এবং বিভিন্ন ধরনের রোগ সৃষ্টি করে। যার ফলে আমরা আবার অসুস্থ হয়ে পড়ি।

তাই সুস্থ এবং সুন্দর জীবন অর্জনের জন্য আমাদের পুষ্টিকর খাদ্য গ্রহণ করা উচিত। আর তা অবশ্যই পরিচ্ছন্ন পরিবেশ তৈরি করা উচিত । আমাদের দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় অবশ্যই খাদ্যের ছয়টি উপাদান রাখতে হবে। যেমন কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, স্নেহ, ভিটামিন, খনিজ লবণ ও পানি। তাই অবশ্যই পুষ্টিকর খাদ্যকে অগ্রাধিকার দিতে হবে এবং তা গ্রহণ করতে হবে।

১। গৃহ কী? গৃহ না থাকলে তােমরা কী কী সমস্যার সম্মুখীন হবে?

২। গৃহের পরিবেশ রক্ষায় ও সৌন্দর্য বর্ধনে তুমি কীভাবে ভূমিকা রাখবে?

৩। গ) করিম সাহেব তাঁর মেয়ের বিয়েতে গৃহ ব্যবস্থাপনার কোন ধাপটি অনুসরণ করেননি- ব্যাখ্যা কর।

ঘ) করিম সাহেবের ভাই যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন সেটি কী ঠিক ছিল? যুক্তিসহকারে তােমার মতামত দাও।

৪। প্রতিবেদন তৈরি: তুমি এক সপ্তাহে প্রতিদিন সকাল, দুপুর ও রাতে যেসব খাবার গ্রহণ কর তা তােমার বয়স ও চাহিদা অনুযায়ী সঠিক কী না পাঠ্যপুস্তকের আলােকে মন্তব্য কর।

 

গৃহ কী? গৃহ না থাকলে তােমরা কী কী সমস্যার সম্মুখীন হবে?

গৃহের পরিবেশ রক্ষায় ও সৌন্দর্য বর্ধনে তুমি কীভাবে ভূমিকা রাখবে?

করিম সাহেব তাঁর মেয়ের বিয়েতে গৃহ ব্যবস্থাপনার কোন ধাপটি অনুসরণ করেননি- ব্যাখ্যা কর।

করিম সাহেবের ভাই যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন সেটি কী ঠিক ছিল? যুক্তিসহকারে তােমার মতামত দাও।

প্রতিবেদন

Back to top button
Close